ব্রেকিং নিউজ :
রাঙ্গামাটিতে শেখ কামাল আন্তঃস্কুল ও মাদ্রাসা এ্যাথলেটিকস সম্পন্ন জুলাই-জানুয়ারিতে রপ্তানি আয় ৯ দশমিক ৮১ শতাংশ বেড়েছে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সচিবের কবিতার বইয়ের মোড়ক উন্মোচন জনগণ আওয়ামী লীগের সঙ্গে আছে আন্দোলন করে লাভ হবে না : প্রধানমন্ত্রী সরকারের উন্নয়ন দেখে বিএনপি অন্তর জ্বালায় ভুগছে : সেতুমন্ত্রী কোমর ভাঙলেও বিএনপির ষড়যন্ত্র থেমে নেই : তথ্যমন্ত্রী নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে প্রতিবাদী হওয়া প্রয়োজন : খাদ্যমন্ত্রী টিসিসির সভায় শিল্প বিরোধ নিষ্পত্তিতে এসওপি চূড়ান্ত অনুমোদন বাংলাদেশের চার মূলীনীতি অস্বীকার করে বিএনপি রাজনীতি করে : মতিয়া চৌধুরী দেশের প্রথম পাতাল মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর
  • আপডেট টাইম : 26/11/2022 06:53 PM
  • 53 বার পঠিত

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে দাঁড়িয়ে থাকা পিকআপের পিছনে দ্রুতগামী বাসের ধাক্কায় ৩ জন নিহত এবং ২ জন গুরুতর আহত হয়েছে।
শনিবার (২৬ নভেম্বর) সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মিরসরাইয়ের চিনকী আস্তানা এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। জোরারগঞ্জ হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আলমগীর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
নিহতরা হলেন- পিকআপচালক মাদারীপুর জেলার শিবচর থানার ভদ্রাসন এলাকার আব্দুর রব বেপারির ছেলে মো. খোরশেদ আলম (৩৮), পিরোজপুর জেলার স্বরূপকাঠি থানার বলদিয়া এলাকার মো. হাসান (৪২), বরিশাল জেলার বানারিপাড়া থানার বিশার কান্দি এলাকার মোহাম্মদ হায়দার আলীর পুত্র মো. সোহেল (৩৮)।
আহতরা হলেন- আরিফ (৩০) ও মো. মিজানুর রহমান মিজান (৩৫)। তাদেরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) ভর্তি করা হয়েছে।
শনিবার ভোরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চিনকী আস্তানা এলাকায় সড়কের পাশে দাঁড়ানো চট্টগ্রামমুখী পিকআপকে (নং ঢাকা মেট্রো ন ১৯-৪৪৫১) দ্রুতগামী এনা পরিবহনের একটি বাস (নং ঢাকা মেট্রো ব ১৪-৯৩৬১) ধাক্কা দিলে পিকআপ চালক ও যাত্রীরা গুরুতর আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক খোরশেদ আলম ও মোহাম্মদ হাসানকে মৃত ঘোষণা করেন। অন্য তিনজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে প্রেরণ করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোহেল মারা যান।
নিহত সোহেলের আত্মীয় জহিরুল ইসলাম জানান, তারা ঢাকা থেকে পিকআপযোগে চট্টগ্রামে একটি জাহাজ মেরামতের কাজ করতে যাচ্ছিলেন। এসময় চালক প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে মিরসরাইয়ের চিনকী আস্তানা এলাকায় রাস্তার পাশে পিকআপ দাঁড় করায়। এসময় পিছন থেকে একটি দ্রুতগামী বাস সজোরে ধাক্কা দিলে ৫ জনের মধ্যে ৩ জন মারা যান। আহত দুজনের শারীরিক অবস্থাও ভালো নয়।
জোরারগঞ্জ হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আলমগীর বলেন, তিনজনের মরদেহ এরং দুর্ঘটনায়কবলিত বাস ও পিকআপ থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। এখনো নিহতদের স্বজনরা থানায় এসে পৌঁছায়নি। তারা আসলে মামলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...